ফুলকপি দিয়ে মজাদার পুলি পিঠা

0

পুলি পিঠা মানেই নারিকেল কোরা আর চিনি অথবা গুড়ের তৈরি মিষ্টি পিঠার কথা মনে হয়। অনেকে মিষ্টি জাতীয় খাবার খেতে পছন্দ করেন না। কারো আবার নারিকেল বা গুড়ে সমস্যা থাকায় এই পিঠা খাওয়ায় হয় না।

তাদের জন্য তো বটেই ভোজন রসিক অন্যান্যদের জন্যও ফুলকপির ভাপা পুলি অসাধারণ একটি মুখরোচক খাবার হতে পারে। মাংস কিমা, চিংড়ি আর ফুলকপির অসাধারণ স্বাদের মিশেল ঘটেছে এই পিঠায়। শীতের এই সময়টাতে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে তরতাজা ফুলকপি। তাই আর দেরি না করে আজই বানিয়ে নিতে পারেন ফুলকপির ভাপা পুলি। নিজের খাওয়া তো চলবেই, প্রিয়জনের মনও ভরানো যাবে। তাই দেখে নিন-

উপকরণ

  • চালের গুঁড়ো ৪ কাপ,
  • মাংস ১ কাপ (কিমা),
  • চিংড়ি মাছ আধা কাপ,
  • ফুলকপি কুচি ১ কাপ,
  • আদা বাটা আধা চা চামচ,
  • পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ,
  • কাঁচামরিচ বাটা ১ চা চামচ,
  • গরম মসলা গুঁড়ো আধা চা চামচ,
  • তেল আধা কাপ,
  • লবণ ১ চা চামচ।

 প্রনালী

– চালের গুঁড়ো গরম পানিতে পরিমাণ মতো লবণ দিয়ে ডো তৈরি করে নিতে হবে। কড়াইয়ে তেলে পেঁয়াজ কুচি বাদামি করে ভেজে আদা বাটা, মরিচ বাটা, মাংসের কিমা, চিংড়ি ও অল্প পানি দিয়ে কষাতে থাকুন। মাঝারি আঁচে রান্না করতে হবে।

– পানি শুকিয়ে গেলে ফুলকপি কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে রান্না করতে হবে। তেল উপরে উঠলে গরম মসলা দিয়ে ভাজা ভাজা করে কষিয়ে নামাতে হবে। পুলি পিঠার আকৃতিতে পুর ভরে পিঠা বানিয়ে নিন।

– এবার একটা হাঁড়িতে পানি দিয়ে স্টিলের জালি বসিয়ে দিন। পানিতে ভাপ এলে একটা পাতলা সাদা কাপড় বিছিয়ে ভাপানোর জন্য পিঠা দিন। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট ভাপালে পিঠা খাওয়ার উপযোগী হবে।

– এবার নামিয়ে চাটনি বা সস দিয়ে পরিবেশন করুন মজার স্বাদের ফুলকপি ভাপা পুলি।

Share.

Leave A Reply