ঈদের দিনের মজাদার ২টি রান্নার রেসিপি

0

ঈদের দিন মিষ্টিমুখ তো করতেই হয়। সেমাই, ফিরনি তো সব সময় হয়, এবারে চলুন নতুন এবং স্বাস্থ্যকর দুটি খাবার বানানো যাক। এই রেসিপি দুটো আপনার পরিবারের সদস্য ও অতিথিদের ভালো লাগবেই।

ছানার জর্দা

উপকরণ

জর্দার জন্য

ছানা – ১ কাপ (১ লিটার দুধের ছানা)

কর্ণ ফ্লাওয়ার – ১/২ টেবিল চামচ

ময়দা – ১/২ টেবিল চামচ

গুড়া দুধ – ১/২ টেবিল চামচ

রাইস ব্র্যান অয়েল – ১ চা চামচ

সুগার সাপ্লিমেন্ট – ১ চা চামচ

সিরার জন্য

সুগার সাপ্লিমেন্ট – ১ কাপ

পানি – ৩/৪ কাপ

লেবুর রস – ১ চা চামচ

এলাচ – ২টা

দারচিনি – ২টা

কিশমিশ, বাদাম কুচি – পরিবেশনের জন্য

প্রণালী

প্রথমেই সিরার সব উপকরণ দিয়ে মাঝারি ঘন সিরা তৈরি করে নিন। এরপরে, ছানার সাথে জর্দার সমস্ত উপকরণ মিশিয়ে ডো তৈরি করুন। এরপরে, একটি ননস্টিকি পাত্রে তেল দিয়ে সবজি কুরানিতে ডো টি ঘষে ঘষে ঝুরঝুরে করে নিয়ে মচমচে করে ভাজুন। খুব বেশি সময় ধরে ভাজবেন না, তাহলে শক্ত হয়ে যেতে পারে। ভাজা হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে, গরম সিরাতে দিয়ে ঢেকে রাখুন কয়েক মিনিট। এরপরে ঝাঁঝরি দিয়ে অতিরিক্ত সিরা ঝরিয়ে নিয়ে একটি ছড়ানো প্লেটে রেখে দিন, কিছুক্ষণের মধ্যেই ঝরঝরে হয়ে যাবে। এরপর কিশমিশ বাদাম ছড়িয়ে পরিবেশন করুন দারুণ সুস্বাদু ছানার জদর্া।

শাহী টুকরা

উপকরণ

মাল্টিগ্রেইন পাউরুটি – ৭ পিস

ফুল ক্রিম দুধ – ১ ১/২ লিটার

সুগার সাপ্লিমেন্ট – ১/২ কাপ

এলাচ – ৩টা

দারচিনি – ১টা

রাইস ব্র্যান অয়েল – ২ টেবিল চামচ

গোলাপ জল – সামান্য

বাদাম ও কিশমিশ – পরিবেশনের জন্য

প্রণালী

একটা বড় হাড়িতে দুধ, এলাচ, দারচিনি দিয়ে মৃদু আঁচে জাল দিতে থাকুন। এ সময় মাঝে মাঝেই নাড়তে হবে যেন তলায় দুধ লেগে না যায়। দুধের ওপর সর পড়লে সেটাও নেড়ে দুধের সাথে মিশিয়ে দিতে হবে। এভাবে দুধ কমে অর্ধেক হয়ে গেলে সুগার সাপ্লিমেন্ট মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর আরও খানিকক্ষণ চুলায় রাখুন কম আঁচে এবং নাড়তে থাকুন।

এবারে পাউরুটির চারপাশের শক্ত অংশটুকু কেটে সেগুলো তিন কোনা বা আড়াআড়ি ভাবে দু টুকরো করে নিন। ননস্টিকি ফ্রাইপ্যানে অল্প একটু তেল দিয়ে পাউরুটিগুলো  দু পাশ সোনালি বা একটু লালচে করে ভেজে নিন। এরপরে পরিবেশন পাত্রে সাজিয়ে ভাজা রুটির টুকরোগুলোর ওপর সামান্য দুধের মিশ্রণ সুন্দরভাবে ছড়িয়ে দিন। বাকি দুধের মিশ্রণ আরও কিছুক্ষণ জ্বাল দিয়ে ঘন ক্রিমের মতো করে ফেলুন। এরপরে নামিয়ে একটু ঠাণ্ডা করে রুটির উপর ঢেলে দিন। এর উপরে গোলাপ জল ছিটিয়ে আর বাদাম কুচি ও কিশমিশ ছিটিয়ে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করুন শাহী টুকরা।

পুষ্টিবিদ শায়লা নাসরিন বলেন যে, আজকাল ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্তদের সংখ্যা বাড়ছেই। কিন্তু উৎসবে মিষ্টি খাবার না হলে অন্তত বাঙালির তৃপ্তি হয় না। তাই সবার জন্য স্বাস্থ্যকর করতে মিষ্টি খাবারে চিনির বদলে ব্যবহার করুন সুগার সাপ্লিমেন্ট। তাহলে শুধু বাচ্চারাই না, বড়রাও আরাম করে মিষ্টি খেতে পারবে।

রেসিপিগুলো ভালো লাগলে এখনি #mytonic লিখে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

Share.

Leave A Reply