মুখরোচক স্বাদে আনারস-মুরগির ঝাল ফ্রাই রেসিপি

0

মুরগি দিয়ে কত ধরনের রান্নাই না করা হয়ে থাকে। মুরগির ঝাল-ঝোল,রোস্ট,ভুনা,ঝাল ফ্রাই ইত্যাদি আরও কত কী! কখনো আনারস দিয়ে রান্না করেছেন কি? আনারসের সাথে মুরগির টক-মিষ্টি স্বাদের ঝাল ফ্রাই কিন্তু চমৎকার হয় খেতে। ফ্রাইড রাইস হোক কিংবা সাদা ভাত,আনারস দিয়ে মুরগি সব কিছুর সাথেই দারুণ মুখরোচক।

পরিবেশন করা যায় নান কিংবা পরোটা/লুচির সাথেও। গরম গরম খেতে যেমন মজাদার, ফ্রিজে রাখলেও স্বাদটা মোটেও কমে যাবে না। আর তৈরিতে ঝামেলা? একদম নেই! মাত্র ১৫ মিনিটেই তৈরি হবে মুখরোচক স্বাদের আনারস-মুরগির ঝাল ফ্রাই!

আসুন, জেনে নেই রেসিপি।

উপকরণ

মুরগী– ৫০০ গ্রাম (পছন্দ মতো ছোট টুকরো করে কাটা)
আনারসের জুস– ১/২ কাপ
আদা বাটা– ১ চা চামচ
পেঁয়াজ মোটা কুচি– ১/২ কাপ
শুকনা মরিচ টেলে আধা ভাঙ্গা গুঁড়ো– ১ চা চামচ
টমেটো কেচাপ– আধা কাপ
লবণ– স্বাদ মতো
দারুচিনি গুঁড়ো – ১/৪ চামচ
মাখন– ৪ চা চামচ
আনারস কিউব করে কাটা– আধা কাপ (ইচ্ছা)
লাল/সবুজ/হলুদ ক্যাপসিকাম কিউব করে কাটা- আধা কাপ (ইচ্ছা)
পেঁয়াজ পাতা- ইচ্ছা মত

প্রণালী

  • -মুরগীর সাথে আদা বাটা,আনারসের জুস,টমেটো কেচাপ,দারুচিনি গুঁড়ো ও লবন দিয়ে কিছুক্ষণ ম্যারিনেট করে রাখুন। এতে মুরগীর ভেতর সব মশলা ভালো ভাবে ঢুকবে। চাইলে সারারাত রেখে দিতে পারেন, আবার ৫ মিনিট রাখলেও কাজ চলবে। অল্প সময় রাখলে হাড় ছাড়া মুরগীর মাংস ব্যবহার করতে পারেন।
  • -এবার চুলায় একটা কড়াই দিয়ে তার ভেতর মাখন দিয়ে গরম হতে দিন। মাখন গরম হলে পেঁয়াজ দিয়ে দিন। কিছু সময় নাড়াচাড়া করে নিন। পেঁয়াজ একটু নরম হয়ে গেলে ম্যারিনেট করা মুরগীর মাংস দিয়ে দিন।
  • -এবার মাঝারি উচ্চ আঁচে ভালো করে কষিয়ে নিন। কষানো হয়ে গেলে খুব সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে দিন।
  • -মাখা মাখা হয়ে গেলে এর ভেতরে ছোট করে কাটা আনারস ও ক্যাপসিকামের টুকরাগুলো দিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রান্না করুন।
  • -৫ মিনিট পর পেঁয়াজ পাতা ছিটিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ।

Share.

Leave A Reply