বার্মায় রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর চলছে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম হত্যাকাণ্ড দেখুন ভিডিও

0

বার্মায় রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর চলছে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম হত্যাকাণ্ড। বার্মায় চলছে মুসলিম গণহত্যার উৎসব। গত কয়েকদিনে ক্ষমতাসীন বৌদ্ধ সরকার আকাশে হেলিকপ্টার গানশীপ ও সমতলে সামরিক সাঁজোয়া যান ব্যবহার করে গন হারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যা করছে বনে-জঙ্গলে, জমিতে, রাস্তায় মুসলমানদের লাশ পড়ে আছে নাফ নদীর ওপারে ভাঁসছে শত শত অভাগা মুসলিম নারী, পুরুষ ও শিশুদের দেহ।

এ শ্রেফ গণহত্যা রোহিঙ্গাদের একটাই অপরাধ এরা মুসলিম তাই এদের উপর চলছে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম নির্যাতন। রামদা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশ গরুর হাড়ের মতো কুপিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। মাথা বিহীন লাশের মিছিল চলছে বার্মায়। শিশুদের খণ্ড বিখন্ড লাশ দেখে আঁতকে উঠবে যে কেউ।

গতকাল আতঙ্কিত রোহিঙ্গা মুসলমানরা বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে গেলে বিজিবি প্রায় শতাধিক রোহিঙ্গাকে আটক করে এবং শত শত রোহিঙ্গাকে সীমান্তের ওপারে তাড়িয়ে দেয়l অথচ এই বিজিবিই প্রতিদিন ভারতের সীমান্ত দিয়ে চোরাচালান কারবারিতে জড়িত। বার্মায় রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর চলছে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম হত্যাকাণ্ড। বার্মায় চলছে মুসলিম গণহত্যার উৎসব।
ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

গত কয়েকদিনে ক্ষমতাসীন বৌদ্ধ সরকার আকাশে হেলিকপ্টার গানশীপ ও সমতলে সামরিক সাঁজোয়া যান ব্যবহার করে গন হারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যা করছে ।

বনে-জঙ্গলে, জমিতে, রাস্তায় মুসলমানদের লাশ পড়ে আছে। নাফ নদীর ওপারে ভাঁসছে শত শত অভাগা মুসলিম নারী, পুরুষ ও শিশুদের দেহ। এ শ্রেফ গণহত্যা ।

রোহিঙ্গাদের একটাই অপরাধ এরা মুসলিম তাই এদের উপর চলছে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম নির্যাতন। রামদা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশ গরুর হাড়ের মতো কুপিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। মাথা বিহীন লাশের মিছিল চলছে বার্মায়। শিশুদের খণ্ড বিখন্ড লাশ দেখে আঁতকে উঠবে যে কেউ।

গতকাল আতঙ্কিত রোহিঙ্গা মুসলমানরা বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে গেলে বিজিবি প্রায় শতাধিক রোহিঙ্গাকে আটক করে এবং শত শত রোহিঙ্গাকে সীমান্তের ওপারে তাড়িয়ে দেয় অথচ এই বিজিবিই প্রতিদিন ভারতের সীমান্ত দিয়ে চোরাচালান কারবারিতে জড়িত।

বাংলাদেশ ভারত সীমান্তে বাংলাদেশীদেরকে দিনের পর দিন গুলি খেয়ে কাঁটাতারে ঝুলে থাকতে হয় আর এই বিজিবিই লাশ গ্রহনের টেন্ডার নিয়ে হাসিমুখে সেলফি তুলে লাশ নিয়ে ঘরে ফেরে ।

একজন সাধারন মুসলিম হিসেবে একজন ক্ষমতাধর মুসলিম নেত্রীর কাছে আমার আকুল আবেদন অন্তত এবারের মতো নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ান ।

বাংলাদেশীদেরকে দিনের পর দিন গুলি খেয়ে কাঁটাতারে ঝুলে থাকতে হয় আর এই বিজিবিই লাশ গ্রহনের টেন্ডার নিয়ে হাসিমুখে সেলফি তুলে লাশ নিয়ে ঘরে ফেরে ।

ঠিক এভাবেই আকুল আবেদন জানাচ্ছে ফেসবুক ব্যাবহারকারি বিভিন্নদেশের ধর্মপ্রান মুললিমরা।

সুত্র : ইন্টারনেট

Share.

Leave A Reply