নান, পরোটার সাথে দারুণ মজাদার হাড়ি কাবাব!

0

কাবাবের নাম শুনলেই  খেতে ইচ্ছে করে। আর এই হাড়ি কাবাব সামান্য গ্রেভি হওয়ার কারণে  নান রুটি, পরোটা কিংবা পোলাও দিয়ে খেতে খুব মজা লাগবে। তবে আর অপেক্ষা কেন! শিখে নেয়া যাক, কীভাবে তৈরি করা যায় হাড়ি কাবাব ।

উপকরণ

  • গরুর মাংস হাড় ছাড়া ১ কেজি
  • পেঁয়াজকুচি ৩ কাপ
  • দই ৪-৫ টেবিল-চামচ
  • আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ
  • রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ
  • পেঁয়াজবাটা ১ টেবিল-চামচ
  • তেঁতুলের কাথ ২ টেবিল-চামচ
  • মরিচ গুঁড়ো  ২ চা-চামচ
  • জিরা গুঁড়ো  ২ চা-চামচ
  • হলুদ গুঁড়ো  ১ চা-চামচ
  • জায়ফল গুঁড়ো  চা-চামচের চারভাগের একভাগ
  • জয়ত্রি গুঁড়ো  আধা চা-চামচ
  • দারুচিনি গুঁড়ো  আধা চা-চামচ
  • গোলমরিচ গুঁড়ো  ১ চা-চামচ
  • এলাচি ৪-৫টি
  • লবঙ্গ ৫-৬টি
  • শুকনামরিচ ৩-৪টি
  • লবন স্বাদমতো বা ২ চা-চামচ
  • তেল আধা কাপ

প্রণালী 

– প্রথমে মাংস চিকন চিকন করে কেটে নিন। এরপর ধুয়ে নিয়ে এর সঙ্গে অর্ধেক পরিমাণ আদা ও রসুনবাটা, জিরা গুঁড়ো, তেঁতুল, শুকনামরিচ, দই আর লবণ দিয়ে মাখিয়ে রেখে দিন।

–  পেঁয়াজ ভাজুন বেরেস্তা করে।

– এবার জায়ফল, জয়ত্রি, দারুচিনি, লবঙ্গ, গোলমরিচ সব একসঙ্গে তেল ছাড়াই চুলায় একটু ভেজে নিন। তারপর পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে একটু নেড়ে মিশিয়ে দিন।

– প্যানে তেল দিয়ে পেঁয়াজ, রসুন ও আদাবাটা, মরিচ গুঁড়ো এবং লবন দিয়ে এক মিনিটের জন্য রান্না করুন। এবার গরুর মাংসে ভালো করে মসলা দিয়ে মাখিয়ে এক কাপ গরম পানি ঢেলে দিন। প্যান ঢেকে দিন।

– কিছুক্ষণ পর পর ঢাকনা উঠিয়ে দেখুন মাংস। মসলা যখন তেলের উপর উঠে আসবে তখন আগে করে রাখা বেরেস্তা-মসলার মিশ্রণ দিয়ে ৫ মিনিট দমে রাখুন।

– তারপর নামিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার হাড়ি কাবাব।

Share.

Leave A Reply