জেনে নিন মেথির জাদুকরী উপকারিতা

0

মেথি বীজ বহুমুখী গুণ সম্পন্ন মসলা যা বিভিন্ন প্রকার রান্নায় ব্যবহার করা হয়। নানাবিধ ঔষধি গুণাগুণের চাইতেও সুগন্ধের জন্য বেশি পরিচিত মেথি। স্বাস্থ্য উপকারিতা ছাড়াও মেথির সৌন্দর্য উপকারিতাও রয়েছে। সহজলভ্য মেথি ত্বক ও চুলের দামী পণ্যের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যায়। আসুন তাহলে একে একে জেনে নিই মেথির স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য উপকারিতা এবং এর ব্যবহার প্রণালী।

১। খুশকি দূর করে

চুলের একটি সাধারণ সমস্যা হচ্ছে খুশকি যা মাথার তালুর মরা চামড়ার কারণে হয়। আপনি যদি অ্যান্টি-ডেন্ড্রাফ শ্যাম্পু ব্যবহার করে ক্লান্ত হয়ে থাকেন তাহলে প্রাকৃতিক শক্তি ব্যবহার করার এখনই সময়। আর সেই প্রাকৃতিক শক্তি হচ্ছে মেথি। মেথি বীজ সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখুন নরম হওয়ার জন্য। সকালে নরম মেথি বীজ পিষে পেস্ট করে নিন। ভালো ফল পেতে মেথির পেস্টের সাথে টকদই মিশিয়ে নিতে পারেন। এই মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ভালো করে ম্যাসাজ করে লাগান। ৩০ মিনিট পরে চুল ধুয়ে ফেলুন এবং খুশকিকে বিদায় বলুন।

২। ব্রণ নিয়ন্ত্রণ করে

মেথি বীজ ব্রণের বিস্তারকে প্রতিরোধ করে এবং ব্ল্যাকহেডস দূর করতেও সাহায্য করে। ত্বকের এপিডারমিস স্তরে জড়ো হওয়া বিষাক্ত উপাদানকে বাহির করে দেয়। এছাড়াও ব্রণের দাগকে হালকা করতে এবং পোড়াদাগ দূর করতেও সাহায্য করে মেথি বীজ। মেথি বীজের পেস্টের সাথে মধু যোগ করে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট মুখের ব্রণের উপর লাগিয়ে সারারাত রাখুন এবং সকালে কুসুম গরম পানি দেয়ে ধুয়ে ফেলুন। কয়েকদিনের মধ্যেই পার্থক্য দেখতে পাবেন।

৩। ওজন কমতে কার্যকরী

মেথি বীজে ফাইবার থাকে যা পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। খালি পেটে মেথি বীজ চিবালে ক্ষুধা কমে। এছাড়াও ২ গ্লাস পানিতে ১ টেবিল চামচ মেথি বীজ ভিজিয়ে রাখুন সারারাত। এই মেথি ভেজানো পানি পান করলে শরীরে পানি জমা বা পেট ফাঁপার সমস্যা দূর করে।

৪। দীপ্তিময় ত্বক পেতে সাহায্য করে

মেথি বীজ শরীরের ফ্রি র‍্যাডিকেল ধ্বংস করতে সাহায্য করে যা রিঙ্কেল, ফাইন লাইন এবং ডার্ক স্পটের মত ফেসিয়াল প্রবলেমের জন্য দায়ী। মেথি বীজ স্কিনটোন হালকা হতে সাহায্য করে। মেথির পেস্ট, মেথি ভেজানো পানি, বেসন এবং দই এর ফেসপ্যাক ত্বকের মরা চামড়া ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে সাহায্য করে।

৫। পরিপাকে সাহায্য করে

বুক জ্বালাপোড়া করা ও পরিপাকের সমস্যা সমাধানে কার্যকরী প্রতিকার হচ্ছে মেথি বীজ খাওয়া। মেথির পেস্টের সাথে আদা কুঁচি মিশিয়ে খাওয়ার পূর্বে ১ টেবিল চামচ করে খান।

৬। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

মেথি বীজ রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। মেথির এমাইনো এসিড অগ্নাশয়ের ইনসুলিন নিঃসরণকে উৎসাহিত করে যা ব্লাড সুগার লেভেল কমতে সাহায্য করে। মেথি বীজ খাওয়া ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ উন্নতি ঘটায় বলে গবেষণায় জানা যায়।

এছাড়াও জাদুকরী গুণের অধিকারী মেথি বীজ খেলে কিডনি পাথর প্রস্রাবের মাধ্যমে বাহির হয়ে যায়, জ্বর কমতে সাহায্য করে মেথি বীজ এবং মেয়েলি সমস্যা সমাধানেও সাহায্য করে মেথি বীজ।

Share.

Leave A Reply