সারাদিন কাজ করেন কম্পিউটারে? চোখের যত্নে প্রতিদিন করুন ১০টি কাজ

0

মানুষের দেহের সবচেয়ে স্পর্শকাতর অঙ্গগুলোর মধ্যে একটি হল চোখ। সৌন্দর্যের ক্ষেত্রেও চোখের আবেদন অনস্বীকার্য। কিন্তু এই চোখকে আমরা অবহেলা করে থাকি। আজকাল কম্পিউটার  জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে গেছে। তা কাজের জন্য হোক বা নিত্য নৈমিত্তক প্রয়োজনে হোক প্রতিনিয়ত আমাদের কম্পিউটার ব্যবহার করতে হয়। কম্পিউটার ব্যবহারে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়ে থাকে আমাদের এই চোখ জোড়ার। এই চোখের যত্নে প্রতিদিন করুন সহজ কিছু কাজ।

১। অনেক মানুষ আছেন, যারা সারাক্ষণ চোখ কচলে থাকেন। হাতে থাকা ময়লা, ধুলাবালি সব চোখের ভিতরে ঢুকে যায় চোখ কচলানোর মাধ্যমে। যার কারণে চোখে ইনফেকশন হয়ে নানা রোগের দেখা দেয়। বারবার চোখ কচলানো থেকে বিরত থাকুন।

২। কম্পিউটারে বসার অবস্থানটি ঠিক রাখুন। কম্পিউটার স্ক্রিনের অবস্থান চোখ থেকে এক হাত ব্যবধানে ২০ ডিগ্রী চোখের স্তর থেকে নিচে হতে হবে।

৩। নিয়মিত সানগ্লাস ব্যবহার করুন। ভাল মানের সানগ্লাস সূর্যের ক্ষতিকর আলট্রাভায়লেট ইউভি রশ্নির হাত থেকে চোখকে রক্ষা করে থাকে। এমন সানগ্লাস ব্যবহার করুন যা ৯৯% থেকে ১০০% ইউভিএ এবং ইউভিবি রশ্মি প্রতিরোধ করে থাকে।

৪। কাজের সময় আপনি ২০-২০-২০ নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। প্রতি ২০ মিনিট পর আপনি কম্পিউটার থেকে চোখ সরিয়ে অন্য কোন কিছুর দিকে তাকান যা আপনার দৃষ্টি থেকে ২০ ফিট দূরে অবস্থিত। কাজ করতে করতে ২০ বার চোখের পলক ফেলুন। এটি আপনার চোখকে ময়শ্চারাইজ করবে।

৫। ধূমপান ত্যাগ করুন। ধূমপান চোখের উপর প্রভাব ফেলে। ধূমপান ম্যাকিউলার, ক্যাটার‍্যাক্ট এবং নার্ভের ক্ষতি করে থাকে। যা দৃষ্টিশক্তি হ্রাস করে দেয়।

৬। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ভিটামিন এ এবং ডি যুক্ত খাবার রাখুন। সঠিক পরিমাণে এই ভিটামিনযুক্ত খাবার না খেলে রাতকানা রোগ এবং চোখের অন্যান্য সমস্যাও দেখা দিতে পারে। ভিটামিন ‘এ’-এর প্রধান উৎস প্রাণীজ প্রোটিন যেমন যকৃত, ডিমের কুসুম, দুধ, মাখন, পনির ও মাছ।

৭। প্রতিদিন ঠান্ডা পানি ঝাপটা দিয়ে চোখ পরিস্কার করুন। এতে আপনার চোখের ময়লা সব বের হয়ে যাবে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপানর চোখের মেকআপ আইলাইনার, মাশকরা,কাজল ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।

৮। অনেকের চোখের নিচ ফোলা থাকে। এটি হয়ে থাকে অতিরিক্ত লবণ খাওয়ার কারণে। লবণ খাওয়া কমিয়ে দিন।

৯। ব্যবহার করা টি ব্যাগ ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে চোখের উপর ১০ মিনিট রাখুন। এটি চোখকে আরাম দিবে এর সাথে আপনার চোখের নিচের কালিও দূর করতে সাহায্য করবে।

১০। একটানা কাজ না করে ২০ মিনিট পর উঠে একটু হেঁটে আসুন, এটি কাজের একঘেয়েমিতা কাটানোর পাশাপাশি আপনার চোখকেও রিলাক্স করবে।

চোখে সমস্যা দেখে দিলে বিলম্ব না করে দ্রুত চোখের ডাক্তার দেখানো উচিত।

Share.

Leave A Reply