তিনঘণ্টা ধরে যুবতির গলায় জড়িয়ে থাকল সাপ, রক্ষা করার পরিবর্তে পূজা শুরু! (ভিডিও)

0

ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে এখনও রয়েছে নানা ধরনের কুসংস্কার। বিভিন্ন রকম কুসংস্কার লালন করেই চলছে মানুষ। যদিও বিজ্ঞান এসব কুসংস্কারকে ভিত্তিহীন বলেই আখ্যা দিয়েছে। বলা বাহুল্য যে তথ্য প্রযুক্তির দিক দিয়ে মানুষ অনেক এগিয়ে গেছে। তবে বর্তমান সময়ে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে কুসংস্কার যে কোন পর্যায়ে অবস্থান করছে তা এই ঘটনা না দেখলে কোন ভাবেই উপলব্ধি করা যাবেনা।

টানা তিনঘণ্টা সময় ধরে এক যুবতির গলায় জড়িয়ে ছিলো একটি সাপ। অথচ সেই সাপের কবল থেকে খুশবু নামের যুবতিকে রক্ষা করার পরিবর্তে উল্টো তাকে দেবতা মনে করে পূজা করা শুরু করে গ্রামবাসী। ভয়ে সেই যুবতি একসময় অজ্ঞান হয়ে পড়েন। কিন্তু তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে সাপসহ সে বাড়িতেই ফেলে রাখা হয়।

লোমহর্ষক এই ঘটনাটি ঘটেছে কানপুরের পতারা ব্লকের অরখোয়া গ্রামে শ্রবণ কুমার নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইনাডু ইন্ডিয়ার প্রকাশিত খবরে বলা হয়, দুপুরে বাড়ির বারান্দায় গায়ে চাদর দিয়ে ঘুমিয়েছিলেন খুশবু। তার চাচী খুশবুকে ঘুম থেকে জাগানোর জন্য গায়ের চাদর সরিয়ে দেখেন খুশবুর গলায় জড়িয়ে রয়েছে সাপ। অথচ তার জ্ঞান নেই।

তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাটি খুব দ্রতই জানাজানি হয়ে যায়। আর এরপর থেকেই সেই বাড়িতে ভিড় জমাতে শুরু করে গ্রামবাসী। খুশবুকে দেবতা মনে করে হাতজোড় করে প্রার্থনা করতে শুরু করে তারা। কিছুক্ষণ পর জ্ঞান ফেরে খুশবুর।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, জ্ঞান ফিরে পাওয়ার পর গ্রামবাসীদের নাকি ভবিষ্যৎবাণী করছিলেন ওই যুবতি। মাঝে মাঝে অজ্ঞানও হয়ে পড়ছিলেন। তবে ঘণ্টা তিনেক পর সাপটি চলে যায়। এমনকি খুশবুর বাবাও এসে মেয়েকে পূজা করেন।

Share.

Leave A Reply