যে সব রোগের কারণ মোবাইল!

0

এখনকার দিনে মোবাইল ছাড়া একমুহূর্ত ভাবা যায় না। সারাক্ষণ এই যন্ত্রটি আমাদের সঙ্গী হয়ে রয়েছে। কাজের ক্ষেত্রে হোক অথবা বিনোদনের ক্ষেত্রে, সবসময়ই এই যন্ত্রটিকে ব্যবহার করে চলেছি আমরা। অফিসের কাজ হোক বা ব্যক্তিগত কাজ সব ক্ষেত্রেই মোবাইল অপরিহার্য হয়ে উঠেছে। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এটিকে আমাদের ব্যবহার করতেই হয়। এছাড়া কোনও উপায় নেই।

মোবাইল থেকে বেরনো ক্ষতিকর বিকিরণে আমাদের শরীর নানা উপায়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এটা আমরা সবাই জানি। মোবাইলের ক্ষতিকর বিকিরণ ক্যানসারের কারণ, সেটাও কারও অজানা নয়। তবে আর কি কি হতে পারে মোবাইল ব্যবহার করলে তা জেনে নিন ।

ক্যানসার

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, মোবাইল থেকে বেরনো রেডিওফ্রিকোয়েন্সির ফলে ব্রেন টিউমার হওয়ার সম্ভাবনা অনেকখানি বেড়ে যায়। এর থেকে ক্যানসারও হতে পারে।

হার্টের সমস্যা

মোবাইল থেকে বেরনো ক্ষতিকর রশ্মি পাকাপাকিভাবে হার্টের সমস্যা তৈরি করে। ফলে বুক পকেটে কখনও মোবাইল রাখবেন না। এবং হার্টের সমস্যা হচ্ছে বুঝলে অবহেলা করবেন না।

বন্ধ্যাত্ব

মোবাইল রশ্মি বিকিরণের এটি অন্যতম ক্ষতিকর দিক। মোবাইল ফোনের ব্যবহারে পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়। ফলে সন্তানের জন্ম দিতে অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়।

শ্রবণ দুর্বলতা

মোবাইলের অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে শ্রবণ শক্তি পুরোপুরি নষ্ট হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরাই। মোবাইলের তড়িৎচুম্বকীয় ক্ষেত্রের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে অন্তরঙ্গতা কানে শোনার ক্ষমতা কমিয়ে দিতে পারে।

চোখের সমস্যা

এখনকারদিনে আমরা অনেকেই সারাদিন কম্পিউটার অথবা মোবাইলে কাজ করি। বেশিক্ষণ মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাঁকিয়ে থাকলে চোখের সমস্যা হতে বাধ্য। কমবয়সেই মোটা ফ্রেমের চশমা চোখে উঠতে পারে আপনার।

ঘুমের ব্যাঘাত

কেন রাতের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে বুঝতে পারছেন? মোবাইল নিয়ে সারাদিন ঘাঁটতে থাকাই এর প্রধান কারণ। মাত্রাতিরিক্ত মোবাইল ঘাঁটা, বিশেষ করে রাতে শুয়ে, ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। এর ফলে শরীরে নানা ধরনের অসুখ বাসা বাধে।

দুর্ঘটনার প্রবণতা বাড়ায়

মোবাইল ব্যবহার করতে করতে কাজ করলে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা অনেকখানি বেড়ে যায়। গাড়ি চালাতে চালাতে অথবা রাস্তা পার হতে গিয়ে কখনও মোবাইল ব্যবহার করা উচিত নয়।

Share.

Leave A Reply