অদ্ভুদ ১০টি বাড়ি, চক্ষু ছানাবড়া!

0

বিচিত্র কত কিছুই তো বানায় মানুষ। এ তালিকায় তার প্রিয় বাড়িও রয়েছে। এখানে দেখুন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের অদ্ভুত সব বাড়ি।

১. জাপানের এই বাড়িটির নাম ফ্লাইং মাড বোট। অদ্ভুত এক ভাসমান বাড়ি। মাটি দিয়ে বানানো নৌকার মতো।

২. এই বাড়িটি দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়। রাশিয়ার সাইবেরিয়ার এক শহর ক্রান্সনোইয়ারস্কের একটি বাড়ি।

৩. দক্ষিণ কোরিয়ার সিম জায়-ডাক হলেন ওয়ার্ল্ড টয়লেট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান। তার বাড়ির সঙ্গে পেশা মেলে। থাকেন টয়লেট সিট ডিজাইনে বানানো বাড়িতে। বাইরে থেকে অন্তত এমনই দেখা যায়।

৪. জাপানের টকিওতে ১৯৮৪ সালে বানানো হয় সানরিও স্ট্রবেরি হাউড। এটা টোকিওর শিশুদের জন্য বানানো প্রথম শপিং সেন্টার। স্ট্রবেরি মাঝের আদলে গড়া ভবনটি যেন এক রূপকথার রাজ্য।

৫. সেই সত্তর দশকে ফ্যাশন ডিজাইনার পিয়েরে কার্ডিনের অদ্ভুত দর্শন বাড়ি। এটাকে ঐতিহাসিক স্থাপনা বলে ঘোষণা দিয়েছে ফ্রান্সের মিনিস্ট্রি অব কালচার।

৬. এ বাড়ির কিভাবে ভারসাম্য রক্ষা করে দাঁড়িয়ে রয়েছে? সার্বিয়ার বাড়িটি এখানে এভাবেই দাঁড়িয়ে রয়েছে ৪৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে।

৭. একটি গম্বুজ একটি বাড়ি। ইন্দোনেশিয়ার প্রাচীন শহর ইয়োগায়াকার্তায় ভূমিকম্পে ঘর হারানো কৃষকদের জন্য বানানো হয় ৭০টি বাড়ি। এই বাড়িগুলো অবশ্য বড় মাত্রার ভূমিকম্প ও ঘণ্টায় ১৯০ মাইল বেগে বয়ে যাওয়া ঝড়ো হাওয়ায় টিকে যেতে সক্ষম।

৮. বিশ্বের সবচেয়ে ছিপছিপে বাড়িটি দেখে নিন। এ বাড়িটি গড়ে মাত্র ৫ ফুট চওড়া। পোল্যান্ডের ওয়ারস শহরে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ হত্যাকাণ্ডে প্রাণ হারা এডগার কেরেটের বাবা-মা। তাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানিয়ে সেই সময় টিকে যাওয়া দুটো বাড়ির মাঝখানে এটি বানিয়েছেন তিনি।

৯. তিন বেডরুমের এই বাড়িটি বানানো হয়েছে চারটি শিপিং কন্টেইনার দিয়ে। সিডনির এ বাড়িতে আছে দুটো বাথরুম, কাঠেল মেঝে, একটি রান্নাঘর এবং কাপড় ধোয়ার কক্ষ। মজার বিষয় হলো, এ বাড়িটিকে যেখানে ইচ্ছা চালিয়ে নেওয়া যায়।

১০. বাড়িটির নাম বিয়ার ক্যান হাউজ। এর বাইরের অংশ ৫০ হাজার বিয়ারের ক্যান দিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

Share.

Leave A Reply