টয়লেটের সুযোগ নেই, শিশুদের মতো ডায়াপার পরেই কাজ করতে হয় কর্মীদের!

0

ডায়াপার, শব্দটি শুনলেই শিশুদের কথা মনে আসাই স্বাভাবিক। কারণ ছোট্ট শিশুটি যাতে বিছানা ভেজাতে না পারে বা বাইরে শিশুটিকে নিয়ে নির্বিঘ্নে চলাফেরার জন্য মায়েরা সাধারণত ডায়াপার ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু এ ডায়াপারই যদি মা-বাবাকে পরে কাজ করতে হয় তাহলে বিষয়টি কেমন হতে পারে!

 অবিশ্বাস্য হলেও আমেরিকার পোলট্রি কারখানাগুলোর কর্মীদের কাছে বিষয়টি নৈমত্তিক ঘটনা। কারণ তাদের ডায়াপার পরে কাজ করতে হচ্ছে। তাও আবার বাধ্য হয়ে!

সম্প্রতি অক্সফাম-আমেরিকা নামে একটি সংগঠনের করা জরিপে এমনই চিত্র উঠে এসেছে। সংগঠনটি আমেরিকার বেশ কয়েকটি নামি পোল্ট্রি কারখানার ২৬৬ জন কর্মীর ওপর জরিপ চালিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে।
সংগঠনটি জানায়, ২৬৬ জন কর্মীর মধ্যে চালানো এ সমীক্ষার ৮০ শতাংশ কর্মী জানিয়েছেন, তাদের টয়লেটে যাওয়ার জন্য ‘ডিউটি আওয়ার্স’-এ কোনো ‘ব্রেক’ দেয়া হয় না। তাই ডায়াপার পরেই তাদের কাজ করতে হয়।

আর এ প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘টাইসন ফুড্‌স’‚ ‘পিলগ্রিম্‌স’, ‘পার্দ্যু’র মতো নামি প্রতিষ্ঠানগুলো। এসব পোলট্রি ফার্মে সারাদিনে গড়ে অন্তত এক লাখ ৮০ হাজার পাখি ‘প্রসেস’ করা হয়। আর প্রতিটি কর্মীকে এক মিনিটে প্রসেস করতে হয় ১৪০টি মুরগি। তবে পোলট্রি কারখানাগুলো ডায়াপার পরার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।-এবিএনএ

Share.

Leave A Reply