সুস্বাদু জলপাইয়ের আচারের তিনটি রেসিপি

0

চলছে জলপাইয়ের মৌসুম, আর এই সময়ে আচার তৈরি না করলে কি চলে? জলপাইয়ের একটা বড় সমস্যা হলো, এই আচার কিছুতেই সুস্বাদু হতে চায় না। অনেকের আচারই বেশ শক্ত রয়ে যায়। আবার অনেকেই জানেন না জলপাইয়ের মিষ্টি আচার তৈরির রেসিপি। সেই সমস্ত সমস্যার সমাধান নিয়ে এলেন মৃন্ময়ী খান, দিয়েছেন তিনটি দারুণ রেসিপি। টক-ঝাল, টক-ঝাল-মিষ্টি এবং জলপাইয়ের মিষ্টি আচার।

জলপাইয়ের টক-ঝাল আচার

উপকরণ :জলপাই ৫০০ গ্রাম, সরিষার তেল পরিমাণমতো, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, লাল গুঁড়া মরিচ ২ টেবিল চামচ, পাঁচফোড়ন ১ টেবিল চামচ, শুকনা লাল মরিচ ২-৪টি আস্ত, হলুদ গুঁড়া সামান্য এবং বিট লবণ ১ চা চামচ। ধনিয়া ও শুকনা মরিচ টেলে নিয়ে গুঁড়া করতে হবে ৩ টেবিল চামচ।

প্রণালি : প্রথমে জলপাইয়ের বোঁটা ফেলে ভালো করে ধুয়ে নিন। কাঁটাচামচ দিয়ে কেঁচে সামান্য লবণ ও হলুদ মাখিয়ে ২ দিন রোদে দিন। দুই দিন পর সরিষার তেল, শুকনা মরিচসহ গরম করে নিন। এই তেল ঠাণ্ডা হলে হলে একে এঁকে তাতে জলপাইসহ অন্য সব মসলা ও লবণ দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। বয়ামে ভরে প্রায় প্রতিদিনই এই আচার রোদে রাখতে হবে। খাওয়ার আগে অন্তত ১৫ দিন রোদে দিন। এই আচার নিয়মিত ভালো করে রোদে দিলে প্রায় ১ বছর খাওয়া যেতে পারে।

 জলপাইয়ের টক ঝাল মিষ্টি আচার

উপকরণ :জলপাই ৫০০ গ্রাম, চিনি পরিমাণমতো, লাল গুঁড়া মরিচ ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, সরিষার তেল পরিমাণমতো, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, লাল মরিচ টেলে গুঁড়া করা ১ টেবিল চামচ এবং পানি পরিমাণমতো, সিরকা (সাদা) আধা কাপ।

প্রণালি : প্রথমে জলপাই কেঁচে নিয়ে লবণ ও পানিসহ সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। তারপর একটি কড়াইতে তেল গরম করে তাতে পাঁচফোড়ন দিয়ে একে একে সিরকা, লবণ ও গুঁড়া মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিয়ে জলপাই দিন। আরও কিছুক্ষণ নেড়ে চিনি ও পরিমাণমতো পানি দিয়ে আবার চুলায় ২০ মিনিট রেখে রান্না করুন। ঠাণ্ডা হলে বয়ামে ভরে ফ্রিজে রাখতে হবে। এ আচার ফ্রিজেই রেখে সংরক্ষণ করুন।

জলপাইয়ের মিষ্টি আচার

উপকরণ :জলপাই ৫০০ গ্রাম, গুড় পরিমাণমতো, পাঁচফোড়ন আধা চা চামচ এবং পানি পরিমাণমতো, সরিষার তেল ১ চা চামচ।

প্রণালি : জলপাই ভালো করে ধুয়ে রাখুন। পরিমাণমতো জলপাই সেদ্ধ করে পানি ফেলে দিন। একটি ফ্রাই প্যানে তেল গরম করে তাতে পাঁচ ফোড়ন দিন। এরপর এতে গুড় ও সামান্য পানি দিয়ে নাড়তে থাকুন। মিশ্রণ ঘন হলে এতে সেদ্ধ করা জলপাই দিয়ে নাড়তে থাকুন। আচার বেশ ঘন হয়ে এলে সেটি নামিয়ে বয়ামে ভরে ফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করুন।

সূত্র: প্রিয় লাইফ

Share.

Leave A Reply