সহজেই তৈরী করুন পাঞ্জাবী মুঠি কাবাব

0

“মুঠি কাবাব” এসেছে পাঞ্জাবী “মুঠঠি কাবাব” থেকে। এটা প্রধানত পাঞ্জাবী একটি খাবার। খাবারটি কিছুটা জালি কাবাব ধরণের হলেও এর আকৃতি এবং কিছু উপাদান ভিন্ন। হাতের মুঠোয় চাপ দিয়ে আকৃতি দেয়া হয় বলে এর নাম হয়েছে মুঠি বা মুঠো কাবাব।

খাবার টেবিলে যে কোনো ধরণের কাবাব থাকলেই পরিবারের সবাই খুশি। আর খুশি হবে নাই বা কেনো? কাবাবের স্বাদ ও ঘ্রাণে সবারই লোভ লেগে যায়। আসুন তাহলে দেখে নেয়া যাক মুঠি কাবাবের সহজ রেসিপি।

পুষ্টিগুণ

একটি মাঝারী আকৃতির মুঠো কাবাবে আছে ১৬০ ক্যালোরি, ৪ গ্রাম ফ্যাট, ১০৫ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল, ৩২০ মিলিগ্রাম সোডিয়াম, ৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট ও ২৬ গ্রাম প্রোটিন।

উপকরণ

– ১/২ কেজি গরুর/খাসির কিমা
– ১ টেবিল চামচ গরম মসলা গুঁড়ো
– পেঁয়াজ কিমা আধা কাপ,
– ১ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি
– ১ টেবিল চামচ কাঁচামরিচ কুচি
– ১ চা চামচ আদা বাটা
– ১ চা চামচ রসুন বাটা
– ১/২ চা চামচ চিনি
– ১ টেবিল চামচ কর্ন ফ্লাওয়ার/ময়দা
– তেল ভাজার জন্য
– সরিষার তেল মাখানোর জন্য
– লবণ স্বাদ অনুযায়ী

প্রস্তুত প্রণালী

– কিমা করা মাংসকে পাটায় আরেকবার ছেঁচে নিন। না নিলেও সমস্যা নেই, তবে নিলে ভালো।

– কিমা ভালো করে ধুয়ে পানি ছেঁকে নিন।

– কিমায় গরম মশলা, আদা বাটা, রসুন বাটা, সরিষার তেল, চিনি, লবণ, পেঁয়াজ, কর্ন ফ্লাওয়ার, ধনেপাতা ও কাঁচামরিচ কুচি মাখিয়ে অন্তত ৩০ মিনিট রাখুন।

– মাঝারী আঁচে চুলায় ফ্রাই প্যান দিয়ে মাঝারি আঁচে তেল গরম করুন।

– এবার হাতে একটু তেল মাখিয়ে নিয়ে কিছুটা মিশ্রন হাতের মুঠোয় নিন।

– মুঠোয় চেপে চেপে আকার দিয়ে গরম ডুবো তেলে ছেড়ে দিন।

– কাবাব লাল করে ভেজে তুলে কিচেন টিস্যুতে তুলে নিন।

– পরোটা, সস কিংবা সালাদের সাথে পরিবেশন করুন গরম গরম মুঠি কাবাব।

Share.

Leave A Reply